জরুরি জন্মনিরোধক পিল খাওয়ার আগে অবশ্যই যা জানতে হবে!  Banner Photo

Ω author: Hasnat Zahan Shapla

 19  1  0

ইমার্জেন্সি কন্ট্রাসেপটিভ পিল বা ইসিপি বা জরুরি জন্মনিরোধক পিল অরক্ষিত শারীরিক সম্পর্কের পর বর্তমানে গর্ভধারণে ইচ্ছুক নয় এমন অনেক নারীদেরই একমাত্র ভরসা। তবে বেশিরভাগ নারীই জানেন না এর উপকারিতা কিংবা পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া সম্পর্কে এমনকি কী কী বিষয়ে সাবধান থাকতে হবে সে সম্পর্কেও সুস্পষ্ট ধারণা নেই অনেকের। অনেক সময় যেমন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায় জটিলতার সৃষ্টি হয়, আবার অনেক সময় না জেনে অনেকেই সাধারণ ঔষধের মত যখন তখন এবং ডোজ সম্পর্কে না জেনে বেশী পরিমাণে গ্রহণ করেন যা দীর্ঘমেয়াদি ক্ষতির কারণ হয়।

তাই আজ চলুন জেনে নেই জরুরি জন্মনিয়ন্ত্রণ ঔষধের উপকারি ও অপকারী দিক এবং যে সকল বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে সেগুলো।

আসুন প্রথমেই জেনে নেই এটি কিভাবে কাজ করে?

 

  • জরুরি জন্মনিরোধক পিল ডিম্বস্ফুটনে বাধা প্রদান করে বা বিলম্বিত করে।
  • ডিম্বাণু বা শুক্রাণুকে প্রভাবিত করে নিষেকে বাধা দেয়। তাই গর্ভাবস্থা হওয়ার আগেই জরুরী গর্ভনিরোধক হিসেবে কাজ করে।
  • তবে একবার নিষেক হয়ে গেলে এটি আর কাজ করে না।
  • এটি আপনার বা বিকাশমান ভ্রূণের কোনো ক্ষতি করে না।
  • জন্মনিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি অব্যাহত না রেখে পরবর্তী চক্রের সাথে উর্বরতা ফিরে আসে।


কখন খাবেন?

 শারীরিক সম্পর্কের পরে বাহাত্তর ঘন্টা (তিন দিন) অবধি গ্রহণের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

 

উপকারিতাঃ

  • অসুরক্ষিত শারীরিক সম্পর্কের বাহাত্তর ঘন্টার মধ্যে যদি গ্রহণ করা হয় তবে সাফল্যের হার 98%। জরুরী ভিত্তিতে গর্ভধারণ রোধে এটি অত্যন্ত কার্যকরী।
  • এটিতে প্রোজেস্টোজেন রয়েছে যা খুব নিরাপদ হরমোন।
  • পরবর্তীকালে গর্ভবতী হওয়া নিয়ে কোনো সমস্যা হয় না।
  • একাধিকবার ব্যবহারে কোনো  সমস্যা নেই।
  • আপনি যদি ইতিমধ্যে গর্ভবতী হন তবে এটি গর্ভপাত ঘটায় না।

 

পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াঃ

  • কিছু কিছু ক্ষেত্রে হালকা অসুস্থ বা বমি বমি ভাব হওয়া
  • মাথা ব্যথা বা মাথা ঝিমঝিম করা
  • ক্লান্তি অনুভব হওয়া
  • স্তনে ব্যথা
  • অনিয়মিত পিরিয়ডের সমস্যা
  • যোনিপথে রক্তক্ষরণ
  • গুরুতর ঝুঁকিগুলির মধ্যে হার্ট অ্যাটাক, রক্ত জমাট বাঁধা এবং স্ট্রোক অন্তর্ভুক্ত।

 

 যেসব বিষয়ে সতর্কতা অবলম্বন করবেনঃ

  1. জরুরি জন্মনিরোধক পিল ব্যর্থ হলে এক্টোপিক গর্ভাবস্থার (গর্ভের বাইরে গর্ভাবস্থা) সামান্য ঝুঁকি থাকে এবং এ ধরনের গর্ভাবস্থা বিপজ্জনক হতে পারে এবং জীবনের জন্য হুমকিস্বরূপ হতে পারে। যদি আপনি তীব্র পেটে ব্যথা অনুভব করেন কিংবা রক্তক্ষরণ হয় তবে দ্রুত হাসপাতালে  যান।

 

  1. আপনি যদি মনে করেন আপনি গর্ভবতী হতে পারেন, আপনি জরুরি জন্মনিরোধক পিল গ্রহণের তিন থেকে চার সপ্তাহ পরে গর্ভাবস্থা পরীক্ষা করুন।

 

 

  1. নিয়মিত পদ্ধতি হিসেবে জরুরি জন্মনিরোধক পিল ব্যবহার করা যায় না। এটি শুধুমাত্র জরুরিভাবে ব্যবহারের জন্যই। জরুরি জন্মনিরোধক পিল অন্যান্য গর্ভনিরোধক পদ্ধতির মতো কার্যকর নয়। ভবিষ্যতে আপনাকে গর্ভধারণ থেকেও বিরত রাখতে পারে না, তাই এটি নিয়মিত গর্ভনিরোধক পদ্ধতি হিসাবে ব্যবহার করা বুদ্ধিমানের কাজ নয়। তাই দীর্ঘমেয়াদে গর্ভধারণ রুখতে সবচেয়ে কার্যকর পদক্ষেপ হলো কপার আইইউডি ব্যবহার করা।

 

  1. জরুরী গর্ভনিরোধক পিল যৌন সংক্রমণজনিত রোগ থেকে রক্ষা করে না, বা এটি বিদ্যমান সংক্রমণের চিকিৎসাও করে না।

 

 

  1. আপনার ওজন যদি সত্তর কেজি বা তার বেশি হয় তাহলে জরুরি জন্মনিরোধক পিল কার্যকর নয় এবং এই পরিস্থিতিতে কপার IUD পদ্ধতি গ্রহণ করাই বাঞ্ছনীয়।  তবে আপনি যদি জরুরি জন্মনিরোধক পিলই নিতে চান বলে মনস্থির করেন তাহলে আপনার দ্বিগুণ ডোজ অর্থাৎ  দুটি ইসি একসাথে নেওয়া উচিত।

 

  1. আপনার অতিরিক্ত জরুরি জন্মনিরোধক পিল বা একটি কপার আইইউডি লাগলে সে সম্পর্কে আপনার চিকিৎসক বা ফার্মাসিস্টের পরামর্শ নিন। জরুরি জন্মনিরোধক পিল নেওয়ার তিন ঘন্টার মধ্যে যদি আপনি বমি করেন তবে আপনার আবারও আর একটি নেওয়া দরকার।

 

 

  1. অনেকের ধারণা পিল শুধুমাত্র পরদিন সকালেই খেতে হবে। এ ধারণাটি ভুল বরং আপনি শারীরিক সম্পর্কের পর পরই খেতে পারেন এবং যত তাড়াতাড়ি খাবেন তত দ্রুত কার্যকরী হবে।

 

  1. এটি আপনি ডাক্তারের প্রেসক্রিপশন অনুযায়ী আগে থেকেই কিনে সংগ্রহ করে রাখতে পারেন বাড়িতে যাতে করে সমস্যা বোঝা মাত্রই আপনি তৎক্ষণাৎ গ্রহণ করতে পারেন।

 

 

  1. যেসব মহিলারা গর্ভবতী তাদের জরুরী গর্ভনিরোধক পিল ব্যবহার করা উচিত নয়।

 

  1. নির্দিষ্ট কোনো পিলের প্রতি অ্যালার্জি থাকলে সেটি গ্রহণ করা উচিত নয়। প্রয়োজনে চিকিৎসকের সাথে পরামর্শ করে আপনার উপযোগী পিলটি বেছে নিন।

 

 

  1. জরুরি জন্মনিরোধক পিল আসলে শুধুমাত্র জরুরি অবস্থার জন্যই প্রযোজ্য। বছরে দুই-তিনবার তাই ব্যবহার করা খুবই সাধারন ব্যাপার কিন্তু আপনি যদি ইচ্ছে করেই ঘন ঘন ব্যবহার করেন তাহলে সেটি দীর্ঘমেয়াদে আপনার শরীরে নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে এবং এতে করে ভবিষ্যতে শরীরের বিভিন্ন ক্ষতির পাশাপাশি বন্ধ্যাত্বেরও কারণ হতে পারে। তাই শারীরিক সম্পর্কের পূর্বেই সুরক্ষার বিষয়ে সচেতন হোন ও অন্যান্য পদ্ধতির যেটি আপনার জন্য সুবিধাজনক সেটি বেছে নিন।

 

  1. জরুরী গর্ভনিরোধক পিল কার্যকর হওয়ার জন্য অবশ্যই প্যাকেজের নির্দেশাবলী সাবধানতার সাথে অনুসরণ করুন।
Share On Facebook

please login to review this blog and to leave a comment.


More From PlexusD

এবারের ডেঙ্গু কেনো অন্যবারের চেয়ে আলাদা?

published on: 22 Jul, 2019

এবারের ডেঙ্গু কেনো আলাদা?: এবারের ডেঙ্গু জ্বরের সাথে আগের মিল নেই। নতুন কোন শক্তিশালী ডেঙ্গু ভাইরাস দিয়ে ছড়ানো এই অসুখ এবার ঢাকায় রীতিমতো মহামারি ...

 6368    2    0 
ডেঙ্গুঃ কারণ, লক্ষণ, প্রতিকার এবং প্রতিরোধ!

published on: 21 Jul, 2019

এই বর্ষায় বৃষ্টির সাথেখিচুড়ি তাে উপভােগ করবেনই, তবে আপনারা যাতে সুস্থতার সাথেতা করতে পারেন তাইগুরুত্বপূর্ণ এক...

 1738    2    0 
ডায়াবেটিস নিয়ে মানুষের যত ভুল ধারণা!

published on: 10 Jul, 2019

বাংলাদেশে ২০৩৫ সালের মধ্যে ডায়াবেটিস রোগীর সংখ্যা দাঁড়াবে ১২৩ মিলিয়নে! নগরায়ন ও শ...

 1700    4    1 

More From Health & Lifestyle

ডায়াবেটিস নিয়ে মানুষের যত ভুল ধারণা!

author: Hasnat Zahan Shapla

বাংলাদেশে ২০৩৫ সালের মধ্যে ডায়াবেটিস রোগীর সংখ্যা দাঁড়াবে ১২৩ মিলিয়নে! নগরায়ন ও শ...

 1700    4    1 
কুইজঃ কতটুকু চিনি আপনার জন্যে ক্ষতিকর?

author: Farhin Ahmed Twinkle

আপনি কি খুব বেশি চিনি খাচ্ছেন? আপনার চিনি খাওয়ার অভ্যাসের ধারণা পেতে এই কুইজটির সকল প্রশ্নের উত্তর দিন — এবং আপনার এই অভ্যাস কাটাতে সহায়তা করার জন্য টিপস সম্পর্কে জ...

 1218    1    0 
হৃদরোগের ওষুধঃ কিডনির বন্ধু নাকি শত্রু?

author: Shakhawat Hossain Akash

আমাদের দেহের গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গের মধ্যে হৃদপিণ্ড এবং কিডনি অন্যতম। একদিকে হৃদপিণ্ড যখন সারা শরীরের অক্সিজেন সমৃদ্ধ রক্ত সঞ্চালনের কাজ করে , অন্যদিকে কিডনি রক্তের ফিল্টার করে ও বর্জ্যগুলো বের করে ...

 1138    2    0