করোনা ও রমজানঃ কেমন হওয়া উচিত খাদ্যাভ্যাস? Banner Photo

Ω author: Shakhawat Hossain Akash

 53  1  0

এবছরের রমজান মাস আমাদের সকলের জন্যে একদম ভিন্ন। লকডাউনের এই পরিস্থিতিতে আমাদের দৈনন্দিন জীবনে যেভাবে পরিবর্তন এসেছে, রমজান মাসও এর ব্যতিক্রম নয়। রমজান মাসে রোযা পালন করার ক্ষেত্রে এবার আমাদের একটি বিষয় মাথায় রাখতে হবে সেটি হলো সঠিক খাদ্যাভাস এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা যাতে নিয়ন্ত্রনে থাকে। রমজানের সেহরি ও ইফতারে কোন ধরণের খাদ্য আমাদের গ্রহণ করা উচিত এবং কী বিষয়গুলো আমাদের পরিহার করা উচিত তা নিয়েই আজকের এই ব্লগে আলোচনা করা হবে। 

যেহেতু রোযা পালন করার সময় দীর্ঘ সময় ধরে না খেয়ে থাকতে হয় তাই শরীরে যাতে পর্যাপ্ত ক্যালরি এবং পানি থাকে সেই ব্যাপারে লক্ষ্য রাখতে হবে। সাসেক্স বিশ্ববিদ্যালয়ের ইমিউনলজিস্ট জিনা মাক্সিওকি বলেছে দীর্ঘ সময় রোযা রাখার ফলে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতায় বিরূপ প্রভাব ফেলতে পারে যদি খাদ্যাভাসে কিছু বিষয় মাথায় না রাখা হয়। তিনি বলেছেন খাদ্যাভাসে দুইটি বিষয় নিশ্চিত করতে হবে সেহরি/ইফতারে। এগুলো হলো- 

মাইক্রোনিউট্রিয়েন্টঃ ভিটামিন সি, আয়রন ইত্যাদি

ম্যাক্রোনিউট্রিয়েন্টঃ জটিল শর্করা, প্রোটিন, ফ্যাট। 

জিনা মাক্সিওকি আরো বলেছেন খাদ্যাভাসে নানা ফল, রঙিন সবজি, ডাল, শীম জাতীয় খাদ্য গ্রহণ করলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পাবে। এই খাদ্যগুলো উচ্চমাত্রায় নিউট্রিয়েন্ট আছে যা আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য অনেক উপকারি। জিনা আরো উল্লেখ করেছেন যে, সেহরি/ইফতারের সময় অতিরিক্ত খাওয়া বা কম খাওয়া উভয়ই রোগ প্রতিরোধের ক্ষেত্রে হানিকর। তাই নিজের শরীরের চাহিদা অনুযায়ী খাদ্য গ্রহণ করতে হবে। 

করোনার পরিস্থিতিতে রমজানের আরো কিছু খাদ্যাভাসের পরামর্শঃ 

১। সেহরিতে অধিক নিউট্রিয়েন্টঃ নিউট্রিয়েন্ট সমৃদ্ধ যে সবজি রয়েছে সেগুলো সেহরির সময় খাওয়া উচিত। করোনা মোকাবেলায় যেহেতু রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা নিয়ন্ত্রনে রাখা মূল লক্ষ্য তাই সেহরিতে নিউট্রিয়েন্ট সমৃদ্ধ সবজিগুলো খাওয়া অতীব জরুরী। 

২। সেহরিতে জটিল শর্করা জাতীয় খাদ্যঃ জটিল শর্করা (Complex carbohydrate) গুলো হজম হতে বেশি সময় নেয় এবং এতে রয়েছে ম্যাক্রোনিউট্রিয়েন্ট। অর্থাৎ একদিকে যেমন এটি অধিক সময় ধরে শরীরে ক্যালরি যোগান দিবে আবার অন্যদিকে নিউট্রিয়েন্ট শরীরের রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থা সুসংগঠিত করবে। 

৩। সেহরি এবং ইফতারে অধিক পানীয় গ্রহণঃ দেখা যায় যে পনীয় জাতীয় খাবার শুধু ইফতারেই পান করা হয়ে থাকে। তবে সেহরির সময়েও কিছু পানি জাতীয় খাবার পান করা যেতে পারে। এতে করে শরীরের পানি স্বল্পতা দেখা যাবে না রোযা রাখার সময়। ইফতারেও ভাজাপোড়া খাবারের থেকে অধিক গুরুত্ব দেয়া উচিত পানীয় খাবারে। পুদিনা পাতা, খেজুর এগুলো দিয়ে নানা রকম পানীয় তৈরি করা যায়। পাতা জাতীয় এই উপাদানগুলো সালাদে যোগ করা যেতে পারে। সেহরি এবং ইফতারে সালাদ শরীরের জন্যে বেশ উপকারী। এগুলো আপনাকে নিউট্রিয়েন্ট দিবে এবং সারাদিনের রোজার শেষে দেহে পুষ্টি যোগান দিবে। 

৪। আমিষ জাতীয় খাদ্য গ্রহণঃ খেয়াল রাখবেন সেহরিতে বেশি মাত্রায় আমিষ খাবেন না। পরিমিত পরিমাণে আমিষ গ্রহণ করবেন। আমিষ বেশি গ্রহণ করার ফলে দেহে পানি সল্পতা দেখা দিতে পারে, গলা শুকিয়ে আসতে পারে। খাদ্য তালিকায় আমিষ অপরিহার্য উপাদান। সেহরিতে ডিম, দুধ, মুরগি, মাছ কিংবা সেহরিতে দই, গ্রিল মুরগি, ডিম, পনীর এগুলো খেতে পারেন। শরীরে ক্যালরি যোগানের পাশাপাশি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও বৃদ্ধি করবে। 

৫। ক্যাফাইন জাতীয় পানীয়তে বিশেষ সতর্কতাঃ সেহরিতে ক্যাফাইন জাতীয় পানীয়- কফি, চা পান না করাই শ্রেয়। এতে করে শরীরের পানির সল্পতা দেখা যেতে পারে। ইফতারের পর চা খাওয়া যেতে পারে। চা এর ক্ষেত্রে লেবু যা বা হারচাল চা খাওয়া শ্রেয় হবে। 

৬। ইফতারে ভাজাপোড়া পরিহারঃ ঐতিহ্যগতভাবে আমাদের দেশের প্রধানতম ইফতার এর খাদ্যতালিকার মধ্যে ভাজাপোড়া খাদ্য বেশি। কিন্তু বর্তমানের এই দুর্যোগপূর্ণ পরিস্থিতি এবং বিশ্ব জনস্বাস্থ্য যখন হুমকির সম্মুখীন তখন আমাদের কিছু বিষয়কে পরিহার এবং কিছু বিষয়ে গুরুত্ব দিতে হবে। ভাজাপোড়া যেসকল খাবার আছে সেগুলো পরিহার করুন। ভাজাপোড়ার বদলে নতুন নতুন সহজ রেসিপি তৈরি করতে পারেন। হালিম, দই-চিড়া জাতীয় খাবারগুলো ভাজাপোড়া খাবার থেকে অধিক উত্তম। ফল, সালাদ এগুলো খাদ্য তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করুন। 

৭। প্রাকৃতিক চিনি গ্রহণঃ চিনি জাতীয় শরবত ইফতারে সারাদিনের রোযা পালনের পর স্বস্তি এবং শক্তি দুটোই দেয়। যেহেতু আমরা লকডাউনে সবাই ঘরেই অবস্থান করছি তাই আমাদের শ্রম বেশি হচ্ছে না দেহের। সেক্ষেত্রে কাচা চিনি যোগ করে পানীয় বা মিষ্টি জাতীয় খাবার না তৈরি করে প্রাকৃতিক চিনি জাতীয় খাবার যেমন- খেজুর এবং মধু যোগ করতে পারেন। খেজুর অতি জনপ্রিয় একটি খাদ্য। এটিকে আমরা বিভিন্ন ধরণের শরবতে চিনির বদলে ব্যবহার করতে পারি। এমনকি মধু দিয়েও নানা রকম পানীয় তৈরি করা যায়। 

রোযা পালনের ক্ষেত্রে এই বিষয়গুলো গুরুত্ব সহকারে আমাদের মেনে চলা উচিত। কেননা এখন আমরা পুরো বিশ্ব একটি কঠিন সময় পার করছি, সেক্ষেত্রে আমাদের সচেতনতাই পারে এই পরিস্থিতি থেকে নিজেদের মুক্ত করতে। নিজেরাও সচেতন হউন এবং অন্যদেরকেও সচেতন করুন রমজানের খাদ্যাভাসের ব্যাপারে। করোনায় সকলে নিরাপদে থাকুন এবং সকল স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন। 

 

তথ্যসূত্রঃ 

১। https://www.bbc.com/news/health-52382293

২। https://www.dailysabah.com/life/health/coronavirus-and-fasting-nutrition-tips-for-a-healthy-sahur-during-ramadan

৩। https://www.middleeasteye.net/discover/coronavirus-ramadan-life-hacks-healthy-eating-holy-month

৪। https://en.prothomalo.com/lifestyle/6-ways-to-stay-fit-and-healthy-during-Ramadan

Share On Facebook

please login to review this blog and to leave a comment.


More From PlexusD

এবারের ডেঙ্গু কেনো অন্যবারের চেয়ে আলাদা?

published on: 22 Jul, 2019

এবারের ডেঙ্গু কেনো আলাদা?: এবারের ডেঙ্গু জ্বরের সাথে আগের মিল নেই। নতুন কোন শক্তিশালী ডেঙ্গু ভাইরাস দিয়ে ছড়ানো এই অসুখ এবার ঢাকায় রীতিমতো মহামারি ...

 6382    2    0 
ডেঙ্গুঃ কারণ, লক্ষণ, প্রতিকার এবং প্রতিরোধ!

published on: 21 Jul, 2019

এই বর্ষায় বৃষ্টির সাথেখিচুড়ি তাে উপভােগ করবেনই, তবে আপনারা যাতে সুস্থতার সাথেতা করতে পারেন তাইগুরুত্বপূর্ণ এক...

 1756    2    0 
ডায়াবেটিস নিয়ে মানুষের যত ভুল ধারণা!

published on: 10 Jul, 2019

বাংলাদেশে ২০৩৫ সালের মধ্যে ডায়াবেটিস রোগীর সংখ্যা দাঁড়াবে ১২৩ মিলিয়নে! নগরায়ন ও শ...

 1718    4    1 

More From Health & Lifestyle

ডায়াবেটিস নিয়ে মানুষের যত ভুল ধারণা!

author: Hasnat Zahan Shapla

বাংলাদেশে ২০৩৫ সালের মধ্যে ডায়াবেটিস রোগীর সংখ্যা দাঁড়াবে ১২৩ মিলিয়নে! নগরায়ন ও শ...

 1718    4    1 
কুইজঃ কতটুকু চিনি আপনার জন্যে ক্ষতিকর?

author: Farhin Ahmed Twinkle

আপনি কি খুব বেশি চিনি খাচ্ছেন? আপনার চিনি খাওয়ার অভ্যাসের ধারণা পেতে এই কুইজটির সকল প্রশ্নের উত্তর দিন — এবং আপনার এই অভ্যাস কাটাতে সহায়তা করার জন্য টিপস সম্পর্কে জ...

 1242    1    0 
হৃদরোগের ওষুধঃ কিডনির বন্ধু নাকি শত্রু?

author: Shakhawat Hossain Akash

আমাদের দেহের গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গের মধ্যে হৃদপিণ্ড এবং কিডনি অন্যতম। একদিকে হৃদপিণ্ড যখন সারা শরীরের অক্সিজেন সমৃদ্ধ রক্ত সঞ্চালনের কাজ করে , অন্যদিকে কিডনি রক্তের ফিল্টার করে ও বর্জ্যগুলো বের করে ...

 1148    2    0